কন্ডম এর তিন হাজার বছরের পুরোনো ইতিহাস আপনাকে অবাক করবে -The three thousand years old history of condoms will surprise you

কন্ডম এর তিন হাজার বছরের পুরোনো ইতিহাস

হ্যালো ব্লগার, আজকে কথা বলবো এমন একটা জিনিস নিয়ে যেটা নিয়ে আলোচনা করতে আমরা একটু সংকোচ বোধ করি, যেটার নাম কন্ডম।

যে কন্ডম এর বিজ্ঞাপন দেখলে আমরা ছোটো বেলায় লজ্জা পেতাম বড়ো হয়ে তার ব্যবহার নিয়ে আমরা সবাই ওয়াকিবহল। চলো আজকে তোমাদের নিয়ে যাই কন্ডমের ইতিহাসের খোঁজে ।https://en.wikipedia.org/wiki/History_of_condoms

কন্ডমের ইতিহাস নিয়ে কথা বলতে গেলে আগে তোমাদের নিয়ে যেতে হবে নীলনদের দেশ মিশরে । প্রাচীণ মিশরের রাজা/ফ্যারাওদের মধ্যে সবথেকে বিখ্যাত ছিলেন তুতেনখামেন।

তার মমি আবিষ্কার হাওয়ার পর তার ভিতরে থাকা ঐশ্বর্য , ধনও সম্পত্তি দেখে রীতিমত অবাক হয়ে যায় ব্রিটিশ প্রত্নতাত্ত্বিক বিশেষজ্ঞ হাওয়ার্ড কাটার।

তার মুখ থেকে একটাই কথা বের হয় “ওয়ান্ডার ফুল “১৯২২ সালে 8 জুন এক শ্রমিকের হাতে আচমকাই বেড়িয়ে পড়ে এই মমি। তবে পুরোপুরি উদ্ধার করতে ১৯২৫ সাল পর্যন্ত সময় গড়িয়ে যায়।

আজ থেকে প্রায় সাড়ে তিন হাজার বছর আগে একদম কিশোর বয়সে রাজা হয়েছিলেন তুতেনখামেন। পিতার মৃত্যুর পর মাত্র ৯ বছর বয়সে সিংহাসনে বসে মাত্র দশ বছর রাজত্ব করতে পেরেছিলেন তুতেনখামেন,

তুতেনখামেনের সমাধিতে পাওয়া কন্ডম

তারপরই তার রহস্য মৃত্যু হয় এবং তার মৃত্যুর ৭০ দিনের মাথায় তাকে মমি করে খুব তাড়াতাড়ি সমাধিস্ত করা হয়।

এর মধ্যে সোনার পালঙ্ক স্বর্ণ সিংহাসন ছাড়া আরো নানা ধরনের অলংকার ছিল ছিল দামী দামী কাঠ , সোনা , রূপা হাতির দাঁত ও রাজার ব্যবহার করা অন্য নানারকমের দামি উপঢৌকন।

এরই মধ্যে আশ্চর্য্যকর যে বস্তুটি পাওয়া যায় সেটা একটা চামড়ার থলি, এবং সেটাকে কোমরে বেঁধে নেওয়ার জন্য একটা ছোট দড়ি ছিল বিশেষজ্ঞদের মতে এটাই আদি কন্ডম ।

আদি কন্ডম এর আসল ইতিহাস ?

তাহলে ভাবো আজ থেকে সাড়ে তিন হাজার বছর আগে তারা কন্ডম এর ব্যাবহার জানত। কনডমের মধ্যে পাওয়া সেই হাজার বছরের পুরনো পুরনো ডি এন এ পরীক্ষা করে জানা যায় যে ওইটা তুতেন খামেনেরই ব্যবহার করা কনডম ছিল।https://selfknowledgepro.com/%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a6%a8%e0%a7%81%e0%a6%b7-%e0%a6%8f%e0%a6%b0-%e0%a6%ac%e0%a7%8d%e0%a6%af%e0%a6%be%e0%a6%ac%e0%a6%b9%e0%a6%be%e0%a6%b0-%e0%a6%b8%e0%a6%ae%e0%a7%8d%e0%a6%aa%e0%a6%b0%e0%a7%8d/

বিশেষজ্ঞরা পরীক্ষা করে জানতে পেরেছিলেন কনডম টা তৈরি করা হয়েছিল গরুর চামড়া ব্যবহার করে, গর্ভনিরোধক জিনিস হিসেবেই তুতেন খামেনের মমির সাথে এটা দিয়ে দেয়া হয়েছিল, এর পিছনে কোন মিশরের প্রাচীন নীতি নেই।

বিশেষজ্ঞরা আরো বলেন যে তুতেনখামেনকে যখন মমি করা হয়েছিল তখন ওনার লিঙ্গ টিকে প্রায় ৯০ ডিগ্রি করে রাখা হয়েছিল।

প্রাচীন রোমে এই রকম বর্তমান যুগের মত কন্ডম ব্যাবহৃত হত
প্রাচীন রোমে এই রকম কন্ডম ব্যাবহৃত হতো

তবে তুতেনখামেন এর লিঙ্গ কে এইভাবে রাখার পিছনে ধর্মীয় কারণ ছিল তুতেন খামেনকে সেই সময় মিশরীয়রা দেবতা ওসিরিয়াস এর অবতার হিসেবে মনে করা হতো।

তবে মিশরের শুধু রাজারাজারেরাই না সেই সময়ে সাধারণ মানুষও নানা রঙের কনডম ব্যবহার করতে জানতো। সমাজের বিভিন্ন স্তরে নানা বর্ণের লোকেদের জন্য আলাদা আলাদা কনডমের ব্যবস্থা ছিল।https://selfknowledgepro.com/%e0%a6%b6%e0%a7%87%e0%a6%95%e0%a7%8d%e0%a6%b8%e0%a6%aa%e0%a6%bf%e0%a6%af%e0%a6%bc%e0%a6%be%e0%a6%b0-%e0%a6%8f%e0%a6%b0-%e0%a6%ac%e0%a6%bf%e0%a6%96%e0%a7%8d%e0%a6%af%e0%a6%be%e0%a6%a4-%e0%a6%95/

মিশরের বাইরে কন্ডম এর ব্যবহার?

শুধু মিশরে নয় মিশরের বাইরে ও প্রাচীন গ্রিসে কনডমের ব্যবহার জানতে পারা যায় ।প্রাচীন গ্রিসের ক্রিট দিপের রাজা মিনোস রানীদের সঙ্গে সঙ্গমের পর পরই রানীদের মৃত্যু হতো,

তাই সেই সময় এক রানী শুয়োরের পাতলা চামড়া নিজের যোনিতে লাগিয়ে তবেই রাজার সাথে শারীরিকভাবে মিলিত হতেন। এই রানি শুধু প্রানে যে বেঁচে গেছেন তা নয় আট আটটা সন্তানের জন্মও তিনি দিয়েছেন ।

এই ছবিতে দেখানো হয়েছে কনডমের প্রায় ৫০০ বছরের ইতিহাস
কন্ডম এর বিবর্তন

এছাড়াও জানা যায় যিশুখ্রিস্টের জন্ম ১৮০০ বছর আগে মিশরেই কাফন মেডিকেল প্যাপিরাস রচিত হয়েছিল,

সেই পুথি অনুসরণ করে মিশরীয়রা কুমিরের মলের সাথে প্রাকৃতিক নানা রকম ঔষধি মিশিয়ে সেটাকে গর্ভনিরোধক হিসেবে ব্যবহার করত মূলত সঙ্গমের আগে মহিলারাই এটা ব্যবহার করত,

কারণ কুমিরের মল এসিডিক ছিল এর ফলে শুক্রাণুগুলো ওই অ্যাসিডিকের সংস্পর্শে আসার সাথে সাথেই মরে যেত যদিও সেই সময় ভারতে হাতির মল ব্যবহার করে,

গর্ভনিরোধক জিনিস তৈরি করত, আবার প্রাচীন সভ্যতাগুলোর মধ্যে রোমানরা কনডম নিয়ে অত উৎসাহিত ছিল না এরপরে যখন যৌন রোগ সিফিলিস মারাত্মকভাবে রোমে ছড়িয়ে পড়ে,

তখন তারা প্রাণীর চামড়া কে কনডম হিসেবে ব্যবহার করতে থাকে। তবে পিছিয়ে ছিলনা চিনের মানুষরা, তারা ছাগল আর ভেড়ার চামড়া দিয়ে কন্ডম তৈরী করে ফেলেছিলেন,

আর ততদিনে কাবুতা ও গাতার ব্যাবহার শিখেছে পুরুষ এর যৌনাঙ্গ ঢাকতে , তারা মূলত এটা তৈরি করতে কচ্ছপের খোল ব্যাবহার করত।

ষোড়শ শতকের ইটালির এক বিখ্যাত শরীরতত্ত্ববিদ গাব্রিয়েল পুরুষের যৌনাঙ্গে ভেরা ও ছাগলএর পাতলা চামড়ার টুপি পড়িয়ে পরীক্ষা করে দেখেন যে সিফিলিস এর মত যৌন রোগ বাধা প্রাপ্ত হয়।

এর পরে পঞ্চদশ শতকে ফ্রান্সে যখন যৌন রোগ সিফিলিস আছড়ে পড়ে তখন কনডম ব্যবহার আবশ্যক হয়ে পড়ে।

আধুনিক কন্ডম এর আবিষ্কার ?

এরপরে সপ্তদশ শতকে ইংল্যান্ডে গর্ভনিরোধক হিসেবে কনডমের ব্যবহার শুরু হয়। সেই সময় ইংল্যান্ডের জনসংখ্যা হঠাৎ করেই কমে যায় । সেই সময় আমেরিকান রসায়নবিদ চার্লস গুড ইয়ারেরে কনডম তৈরিতে ভালোকানাইজড রবারের ব্যাবহার সবাইকে অবাক করে দেয়,

তাকেই আধুনিক কনডমের জনক বলা হয় তিনিই প্রথম রবারের সঙ্গে গন্ধক মিশিয়ে স্থিতিস্থাপক নমনীয় টেকসই কনডম তৈরি করেন। এরপরে ১৮৬০ সাল থেকেই আধুনিক কনডমের বিস্তার শুরু হয়।

কন্ডম এর তিন হাজার বছরের পুরোনো ইতিহাস আপনাকে অবাক করবে -The three thousand years old history of condoms will surprise you

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to top