জীবনে চুপ থাকার উপকারিতা-Benefits of silence in Life

জীবনে চুপ করে থাকার বা introvert হওয়ার উপকারিতা আমাদের যে জীবনে অনেক দূরে নিয়ে যেতে পারে আজকে  সেটা নিয়ে আলোচনা করব। আসলে বর্তমান সময়ে আমরা সব সময়ে কিছু না ই কিছু বলার জন্য  মুখিয়ে থাকি। অপর দিকের মানুষ টার কথা শেষ হবার আগেই আমরা কিছু না কিছু বলার চেষ্টা করি, এমন কি কেউ আমাদের মনের কথা খুচিয়ে বের করতে চাইলেও আমরা গর গর করে বলে দি। এতে আপনি হয়তো সরল মনের উদাহরণ  দিলেন কিন্তু অপর দিকের মানুষটা সব শুনে আপনাকে আঘাত করার নতুন কিছু পেয়ে গেলো, 

তাই জীবনে চুপ থাকার উপকারিতা নিয়ে তিনটে ঘটনা বলি

ওসামা বিন লাদেন

প্রথমে বলব পৃথিবীর অন্যতম খ্যাতনামা জঙ্গি সংগঠন এর দিক নির্দেশক ওসামা বিন লাদেন এর কথা। আমেরিকার টুইন টাওয়ার ধ্বংসের পর লাদেন আমেরিকার সরকার এর কাছে অন্যতম মোস্ট ওয়ানটেড জঙ্গি তে পরিণত হয়। জর্জ ডব্লিউ বুশ এর সময় থেকে লাদেন কে খোঁজার জন্য চেষ্টা চালাতে থাকে আমেরিকার ইন্টেলিজেন্স এজেন্সি। কিন্তু খোজ কিছুতেই পাচ্ছিল না তারা। অবশেষে গোয়েন্দা সংস্থা জানতে পারে পাকিস্তানের এর অ্যাবোটাবাদে লাদেন এর আস্তানার খোঁজ। এর পর নিজেদের স্ট্যাটালাইট, গুপ্তচর দের কাজে লাগিয়ে লাদেন এর কাছের সঙ্গী আবু আল আহমেদ এর ব্যাপারে জানতে পারে আমেরিকার গোয়েন্দারা রা। তারা খেয়াল করে যখনই আবু আল আইমেদ এর কাছে  ফোন আসতো তখনই সে বাড়ি থেকে দুই কিলোমিটার গিয়ে ফোন ফোন ধরতো। এই ফাঁদ টা কেই কাজে লাগায় সি আই এ। এই রকম একবার ২০১১ সালের জানুয়ারি মাস নাগাদ আবু আল আহমেদ এর কাছে ফোন আসে, প্রতিবার এর মত এবার ও সে বাড়ি থেকে বেরিয়ে আশে, বেশ কিছুটা দূরে গিয়ে বন্ধুর ফোন রিসিভ করে কথা বলতে বলতেই তার বন্ধু তার কাছে তার বর্তমান থাকার জায়গা জানতে চায়। প্রথমে আবু আল আহমেদ বলতে অস্বীকার করলেও শেষমেষ বন্ধুর বার বার জিজ্ঞেস করাতে রীতিমত বিরক্ত হয়ে সে তার থাকার জায়গা ও কার হয়ে সে এখন কাজ করছে মুখ ফসকে বলে দেয়। ঠিক এই ঘটনার এক মাসের মাথায় আমেরিকা সিল কমান্ড দিয়ে অ্যাবোটাবাদে লাদেন এর আস্তানায় ঢুকে লাদেন কে শেষ করে।


2.দ্বিতীয় কাহিনী টা কিন্তু প্রথম কাহিনী এর থেকে একদম আলাদা। ধরুন আপনাকে যদি জিজ্ঞেস করা হয় আপনি amazon. Com সম্পর্কে তাহলে আপনি এক কথায় বলে দেবেন তাদের অন লাইন ব্যাবসার কথা। কিন্তু জানেন কি amazon বছরে যা অর্থ রোজগার তার অনেক টাই আসে cloud ব্যাবসা থেকে । তাদের ক্লাউড ব্যাবসায় ইন্টারনেট জায়েন্ট  গুগল ও অনেক পিছনে। amazon যখন এই ব্যাবসায় ঢোকে তখন পৃথিবী জুড়ে ধীরে ধীরে ইন্টারনেট বাড়ছে। জেফ বেজোস বুঝতে পেরেছিলেন এই ব্যাবসা তাকে অনেক দূর নিয়ে যাবে,Amazon cloud business 
তাই ২০০৩  সালে amazon যখন ক্লাউড ব্যাবসা তে আসে তখন পর্যন্ত amazon শেয়ার হোলডার রা এই ব্যাপারে কিছুই জানতেন না। এমনকি কোম্পানির investa presentation এও  এই ব্যাপারে কিছুই খোলসা করেননি তিনি। আজকে ২০২১ সালে এসে ক্লাউড ব্যাবসার ৭০% amazon এর দখলে। যার ধারে পাশেও গুগল এর মত ইন্টারনেট জায়েন্ট নেই 

জেফ Bezos

                       

Jack maa

                 
সাল টা ২০১৯, চিনের সব থেকে বড়ো ধনী আলিবাব গ্রুপ এর প্রতিষ্ঠাতা একটা business summit এ গিয়ে চীন সরকার কে নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা করলেন বললেন যে চিনের সরকার মোটেই ব্যাবসায়িক বান্ধব সরকার নয়, সরকার উচিত ব্যাবসায়িক দের আরো স্বাধীনতা দেওয়া। এই কথা মোটেই পছন্দ হয়নি জিং পিং পরিচালিত চিনের কম্যুনিস্ট সরকার এর। তার পরের ঘটনা সবার জানা, বেশ কিছু দিনের জ্যাক মা কে যেন ভ্যানিশ করে দিয়েছিল সেখান কার সরকার। তার পরে বিভিন্ন কনফারেন্সে একটা দুটো কথা গুরুত্বপূর্ণ কথা ছাড়া আর কোনো কথা বলেননি তিনি ।

এই জন্যই বলা হয় যেখানে যে টুকু কথা বলার সেই টুকু বলুন তার বেশি না ।

জীবনে চুপ থাকার উপকারিতা-Benefits of silence in Life

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to top